Home / ত্বকের যত্ন / মেকআপের যে ৫ ভুলের জন্যে আপনাকে বয়স্ক দেখায়

মেকআপের যে ৫ ভুলের জন্যে আপনাকে বয়স্ক দেখায়

সঠিকভাবে মেকআপ করতে পারাটাও একটি দক্ষতা। কমবেশী সকলে মেকআপ করতে পারলেও, এর উপরে দক্ষতা সকলের থাকে না। কোন অনুষ্ঠানে, অথবা কর্মক্ষেত্রে নিজেকে পরিপাটিভাবে উপস্থাপন করার মাঝে স্মার্টনেস প্রকাশিত হয়। আর নিজেকে পরিপাটিভাবে উপস্থাপন করার জন্য অন্যতম একটি প্রয়োজনীয় ব্যাপার হলো নিখুঁতভাবে মেকআপ করা।

মেকআপ করার ক্ষেত্রে অনেকেই কিছু সাধারণ ভুল করে থাকেন। যার ফলাফল স্বরূপ নিজের চেহারার মাঝে বয়সের ছাপ চলে আসে, অথচ হওয়ার কথা একেবারেই বিপরীত! জেনে নিন কোন ভুলগুলোর ফলে মেকআপের পরেও চেহারার মাঝে চলে আসে বয়সের ছাপ।

অনেক বেশী পরিমাণে কনসিলার ব্যবহার

চোখের নীচের কালো দাগ দূর করার ক্ষেত্রে কনসিলার জাদুর মতো কাজ করে যেন! তবে কনসিলার ব্যবহার করতে হবে খুবই পরিমিত পরিমাণে। কনসিলার অতিরিক্ত ব্যবহার করলে চোখের নীচে পুরু আস্তরণের সৃষ্টি হয়, যার ফলে মেকআপ ফেটে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে। এতে করে চেহারার মাঝে বয়স্কের ছাপ চলে এসেছে বলে মনে হতে থাকে। বিশেষ করে, চোখের আশেপাশে যদি বলিরেখা থাকে, সেক্ষেত্রে খুবই সাবধানতার সাথে কনসিলার ব্যবহার করতে হবে। না হলে বলিরেখা আরো বেশী স্পষ্ট হয়ে উঠবে।

অনেক বেশী গাড় রঙের ব্রোঞ্জার ব্যবহার

কে না চায় মেকআপের পরেও চেহারার মাঝে ‘ন্যাচারাল লুক’ নিয়ে আসতে। সেক্ষেত্রে ব্রোঞ্জার খুবই দারুণ একটি মেকআপ এর উপকরণ। যা ত্বকের মাঝে খুব হালকা তবে দারুনভাবে গাড় একটা আভা এনে দিতে সাহায্য করে। কিন্তু, অতিরিক্ত ব্রোঞ্জার ব্যবহারের ফলে চেহারার মাঝে ‘ন্যাচারাল লুক’ এর বদলে বিদঘুটে ভাব চলে আসবে। ব্রোঞ্জার ব্যবহারের ক্ষেত্রে তাই কিছু সাধারণ নিয়ম মেনে ঠিকঠাকভাবে মেকআপ করতে পারলে চমৎকারভাবে মেকআপ করা সম্ভব। ব্রোঞ্জার সবসময় নিজের ত্বকের রঙের থেকে দুই শেড গাড় কিনতে হবে। ব্রোঞ্জার ব্রাশে ঘষে নেওয়ার পরে হাতের তালুতে টোকা দিয়ে অতিরিক্ত ব্রোঞ্জার ফেলে দিয়ে এরপর মুখে ব্যবহার করতে হবে এবং খুব ভালোভাবে ব্লেন্ড করতে হবে।

ভিন্ন রঙের লিপলাইনার ব্যবহার

নব্বই এর দশকের একটি অদ্ভুত ট্রেন্ড ছিল- লিপস্টিকের থেকে একবারে ভিন্ন রঙের অথবা অনেক বেশী গাড় রঙের লিপলাইনার ব্যবহার করা! এখনকার সময়ে কিন্তু এই ট্রেন্ড একেবারেই নেই। লিপলাইনার এখন ব্যবহার করা হয় লিপস্টিকের রঙের সাথে একদম মিলিয়ে। তাই ভুলেও ভিন্ন রঙের কিংবা গাড় রঙের লিপলাইনার ব্যবহার করবেন না।

আইভ্রু অনেক বেশী চিকন করে প্লাক করা

বর্তমান সময়ে গাড়, ঘন এবং মোটা আইভ্রু সকলের মাঝে বেশী জনপ্রিয় এবং এখনকার সময়ে মেয়েদের স্মার্ট ও ট্রেন্ডি হিসেবেও পরিচিত। কেও যদি আইভ্রু খুব চিকন শেপ করে প্লাক করেন তবে সেক্ষেত্রে অনেকেই তাকে বয়স্ক মানুষ হিসেবে মনে করে থাকেন। কারণ নব্বই দশকের দিকে সকলেই খুব চিকন করে আইভ্রু প্লাক করতেন! মোটা আইভ্রু কে এখন ‘তারুণ্য’ এর প্রতীক হিসেবেও ধরা হয়।

ব্লাশ খুব ভালোভাবে ব্লেন্ড না করা

পরিহিত জামার সাথে ম্যাচিং করে ব্লাশ না দিলে যেন মেকআপের পরিপূর্ণতা আসেই না একদম। আর মেকআপের এই উপকরণটি ব্যবহারের ক্ষেত্রেই সবচেয়ে বেশী ভুল করে থাকে সকলে। ব্লাশ দিতে হয় খুব অল্প পরিমাণে এবং খুব ভালভাবে ব্রাশ দিয়ে ব্লাশ ত্বকের সাথে একদম ব্লেন্ড করে ফেলতে হয়। যেন দূর থেকে দেখলে গালে হালকা লাল, গোলাপি কিংবা কমলা আভা বোঝা যায়। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই অনেকে যে ভুলটা করে থাকেন, গালে ব্লাশ খুব গাড় করে এবং একেবারেই ভালোভাবে ব্লেন্ড না করে ব্যবহার করেন। সেক্ষেত্রে দেখতে খুবই বাজে এবং বয়স্ক লাগতে থাকে। সঠিকভাবে ব্লাশ ব্যবহার করতে পারলে চেহারার মাঝে তারুণ্য ফুটে ওঠে চমৎকারভাবে।

Check Also

ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করবে এই ৫ উপাদান!

শুধুমাত্র শীতকালেই নয়, পুরো বছর ধরেই দেখা যায় অনেকের ঠোঁটে একেবারে কালচে দাগ পড়ে থাকে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *